বিদেশে আম ও পান রাপ্তানি এবং প্রযুক্তির বিল্পব ঘটিয়েই কৃষকের আস্তা অর্জন

হরিণাকুন্ডু উপজেলা কৃষি অফিসার আরশাদ আলী চৌধুরী

স্টাফ রিপোর্টার॥

দীর্ঘ ছয় বছর ধরে একই জনপদের কৃষকের সাথে নতুন নতুন প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করা। এবং কাজের ফল হিসেবে বিদেশে আম ও পান রাপ্তানি করে কৃষকের মাঝে আস্তা অর্জন করে নিয়েছেন হরিণাকুন্ডু কৃষি অফিসার। এইক কর্মস্থলে কাজ করার সময়ে কৃষকদের পাশে থেকে কৃষি উন্নয়নে নিরলস পরিশ্রম করে চলেছেন তিনি।

ঝিনাইদহ জেলার হরিণাকুন্ডু উপজেলার কৃষি অফিসার মোঃ আরশাদ আলী চৌধুরীর সফলতায় ছাদ কৃষি, উন্নত জাতের ওল কচু, মুকি কচু, শাক, সবজী, পান ও আমকে নিরাপদ ও আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে কৃষি বিল্পব ঘটিয়েছেন।

মেহেরপুর সদর, কুষ্টিয়ার মিরপুর ও রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজের পর পহেলা জুলাই ২০১৪ইং সালে হরিণাকুন্ডু উপজেলা কৃষি অফিসার হিসেবে যোগদান করেন ।

তার যোগদানের পূর্বে উপজেলার কৃষক ও কৃষিকে নিয়ে তেমন পরিচিতি না ঘটলেও তার যোগদানের পর থেকে কৃষকের ব্যাপক প্রবিদ্ধি ঘটেছে।

তার প্রচেষ্টায় নিরাপদ খাদ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে এই উপজেলা থেকে এখন আম ও পান বাইরের দেশে রপ্তানি হচ্ছে। এছাড়াও তিনি ছাদ কৃষিতে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন।

উপজেলা কৃষি অফিসার দৈনিক নবচিত্র পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার আব্দুল্লাহ আল মামুন-এর কাছে দেওয়া এক স্বাক্ষাত কারে জানান, আমি এই উপজেলায় কৃষির আধুনিক প্রযুক্তি বিস্তারের চেষ্টা করেছি মাত্র।

কৃষি যন্ত্রপাতি ব্যবহারে উৎসাহিত, নিরাপদ স্বাস্থ্যসম্মত সবজি ও ফলমুল চাষে আইপিএম তথা জৈব বালাইনাশক, ফেরোমন ফাঁদ ব্যবহার বৃদ্ধি, জৈবসার, সবুজসার, ভার্মি কম্পোস্ট, ট্রাইকো কম্পোস্ট, আদর্শ বীজতলাসহ সম্ভব্য সকল প্রযুক্তি ব্যবহারে উৎসাহ যুগিয়েছি কৃষকের।

তিনি আরো জানান, ছাদ কৃষি নিয়ে কাজ করেছি, শ্রদ্ধেয় জেলা প্রশাসক, কৃষি বিভাগের উপপরিচালক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয়গণের মাধ্যমে কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও প্রিয় কৃষক ভাইদের মাঝে নিজেস্ব অর্থায়নে ছাদ কৃষির সবজি ও ফলের চারা বিতরণ করেছি।

ছাদ কৃষির জনপ্রিয়তা বৃদ্ধিতে কাজ করেছি। এছাড়াও জেলার একমাত্র উপজেলা হরিণাকুন্ডু হতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অর্থয়নে প্রিয় কৃষকদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে তাদেরকে প্রশিক্ষিত করে নিরাপদ পান ও আম বিদেশে রপ্তানি করা সুযোগ করা হয়েছে।

কৃষকের উন্নয়নে আর কি কি কাজ করেছেন এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, প্রিয় কৃষকদের প্রশিক্ষণ প্রদান, প্রদর্শনী স্থাপন, মাঠদিবস, কৃষি মেলা, উঠান বৈঠক, রাত্রি কালীন কৃষি বিষয়ক ভিডিও প্রদর্শন, কৃষি যন্ত্রপাতি বিতরণ, কৃষি প্রণোদনা বাস্থবায়নসহ বিভিন্ন ভাবে কৃষকে আধুনিক কৃষির সাথে পরিচয় ঘটানোর চেষ্টা করেছি।

আপনি এই জনপদে কাজ করেতে এসে কেমন উৎসাহ পেয়েছেন? জবাবে তিনি জানান, বিভিন্ন কর্মকান্ডের সময়ে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উর্ধতন কর্তৃপক্ষ, জাতীয় সংসদ সদস্য ঝিনাইদহ-২, জেলা প্রশাসক, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ঝিনাইদহ পৌর মেয়র, উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীবৃন্দ, হরিণাকুন্ডু পৌর মেয়র, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানগণ, উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এ্যাড এমএ মজিদ ও বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ জাহাঙ্গীর হোসাইন এবং বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শ্রদ্ধেয় শিক্ষক, সাংবাদিক বৃন্দসহ হরিণাকুন্ডুর গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ ও কৃষক ভাইরা আমার কাজের সহযোগিতা ও প্রেরণা জুগিয়েছেন।

সাম্প্রতি আম্পান ও বর্তমানে করোনা কালীন সময়টা আপনার কিভাবে পার করছেন? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, বর্তমানে বিশে^র বিভিন্ন দেশে করোনাকালীন সময়ে খাদ্য সমস্যা দেখা দিচ্ছে কিংবা দিবে।

কিন্তু বাংলাদেশে প্রধান মন্ত্রী ও কৃষি মন্ত্রীর নির্দেশনায় একইঞ্চি পতিত জমি যেন পড়ে না থাকে সেই আলোকে কৃষি বিভাগ আমরা নিরলস কাজ করে যাচ্ছি।

লক্ষমাত্রার চেয়ে বেশি ধান উৎপাদন করতে স্বক্ষম হয়েছি। তাছাড়া প্রতিটি বসতবাড়ীতে যাতে শাক সবজি চাষ করতে পারে সেই লক্ষে আমরা তাদের পরামর্শ দিয়ে যচ্ছি।

বর্তমানে করোনা পরিস্থিতে চাষী ভাইরা যাতে হাটবাজার বা জনসমাগম এড়িয়ে চলে সে ব্যাপারে তাদের সতর্ক করা হচ্ছে। এবং তারা যাতে হাটবাজারে যেখানেই যাক না কেন তাকে মাক্স পরার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

এছাড়াও করোনা কালীন সময়ে কৃষকদের উপরার্থে অফিসে একটি হেল্প ডেক্স খোলা হয়েছে যাতে করে সেখান থেকেই তারা তাদের প্রয়োজনীয় সেবা পেতে পারে। এবং প্রতিটি ইউনিয়নের উপসহকারীদের নাম ও মোবাইল নাম্বার তালিকা করে অফিসের সামনে রাখা হয়েছে।

সেখান থেকে কৃষকরা তাদের সাথে সরাসরি মোবাইল ফোনের মাধ্যমে কথা বলতে পারে। সর্বপরি বলবো আমি সাধারণ মানুষ, কাজকর্মে ভুলত্রুটি থাকবে সেটাই স্বাভাবিক।

আমার ভুলত্রুটিগুলো ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখে ভবিষ্যতের আমি যেন আরো ভালো প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করতে পারি সকলের কাছে আমার জন্য দোয়ার আবেদন রাখছি। সবাই করোনা কালীন সময়ে নিরাপদ দুরুত্বে থাকবেন দুস্থ্য থাকবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here