গৃহবধূকে হত্যার দায়ে স্বামী-শ্বশুরের মৃত্যুদণ্ড

আমার নিউজ ডেস্ক: টাঙ্গাইলে যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে হত্যার দায়ে স্বামী ও শ্বশুরের মৃত্যুদণ্ড ও এক লাখ টাকা জরিমানার আদেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার দুপুরে টাঙ্গাইল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক খালেদা ইয়াসমিন এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন নিহত ওই নারীর স্বামী জহিরুল ইসলাম (২৫) ও শ্বশুর মজনু মিয়া (৫৫)।

টাঙ্গাইল আদালত পরিদর্শক তানভীর আহমেদ নিশ্চত করে জানান, রায় ঘোষণার সময় আসামিরা আদালতে অনুপস্থিত ছিলেন। জহিরুল ও মজনু মিয়ার ফাঁসির আদেশ ছাড়াও অনাদায়ে প্রত্যেককে আরও এক লাখ টাকা করে জরিমানাও করা হয়েছে।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, ২০১৪ সালে টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার তছলিম উদ্দিন তার মেয়ে তাছলিমা আক্তারকে (২১) বিয়ে দেন একই উপজেলার মজনু মিয়ার ছেলে জহিরুল ইসলামের সঙ্গে। বিয়ের পর থেকেই তাছলিমা আক্তারকে যৌতুকের জন্য মারপিট করতেন তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন।

২০১৬ সালের ২৮ নভেম্বর তাছলিমাকে কোথাও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না বলে তার বাবা তছলিমকে মোবাইল ফোনে বিষয়টি জানান জহিরুল ইসলাম।

পরে ওই দিনই তছলিম উদ্দিন তার মেয়েকে না পাওয়ায় ভূঞাপুর থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। পর দিন ২৯ নভেম্বর উপজেলার গোবিন্দাসী বাজারের পশ্চিমপাশে যমুনা নদীর পাড় থেকে তাছলিমার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

পরে এ ঘটনায় মেয়ের জামাই ও শ্বশুরসহ তিনজনের নাম উল্লেখ করে নিহতের বাবা তাছলিম উদ্দিন বাদী হয়ে ভূঞাপুর থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। এদিকে এ ঘটনার পর থেকেই আসামিরা পলাতক রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here